Monday , October 3 2022
শিশুর মানসিক সুস্থতার জন্য জরুরী খাদ্য তালিকা!
Image: google

শিশুর মানসিক সুস্থতার জন্য জরুরী খাদ্য তালিকা!

শিশুর মানসিক সুস্থতার জন্য খাদ্যতালিকায় এমন খাবার রাখা উচিত যেগুলো শিশুর প্রোটিন, ভিটামিন ও খনিজের চাহিদা পূরণ করে। আসুন জেনে নেই বিস্তারিত… 1. ডিম: বিশেষজ্ঞরা বলেন, শিশুদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় ৪৫-৫৫ গ্রাম প্রোটিন থাকা অত্যন্ত জরুরী। প্রতিদিন

একটি করে ডিম খাওয়ালে প্রোটিনের যোগান পূর্ণ হয়। এছাড়াও ডিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ থাকে। আরো থাকে কলির নামক পুষ্টিকর উপাদান যা মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য জরুরী। 2. ওটমিল: আর একটি পুষ্টিকর খাবার হচ্ছে ওটমিল। সমৃদ্ধ ওটমিল বাড়ন্ত শিশুদের

শক্তি সরবরাহ করে। দুধ: দুধে রয়েছে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, প্রোটিন ও কার্বোহাইড্রেট। শিশুর হাড় গঠনে কার্যকর এসব উপাদান। 3. পালং শাক: শিশুকে খাওয়াতে পারেন পালং শাক। আয়রন, ক্যালসিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন এ ও সি এর চমৎকার উৎস এটি।

এগুলো শিশুদের মানসিক বিকাশে সাহায্য করে, তেমনি মজবুত হাড় গঠনে ভূমিকা রাখে। 4. মিষ্টি আলু: পুষ্টিকর খাবার হিসেবে মিষ্টি আলুর জুড়ি নেই। এতে থাকা ফাইবার ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন এ শিশুর বিকাশে অপরিহার্য। 5. পিনাট বাটার: সাধারণ মাখনের চাইতে পিনাট বাটার

বেশি পুষ্টিকর। এতে আয়রন, প্রোটিন, ফাইবার ও ভিটামিন থাকে। ২ টেবিল চামচ পিনাট বাটারে প্রায় ২৮ শতাংশ প্রোটিন পাওয়া যায়। 6. দ‌ই: দই রাখতে পারেন শিশুদের খাদ্যতালিকায়। প্রতিদিন খানিকটা টক দই খেলে দাঁত ও হাড় মজবুত হবে। ক্যালসিয়াম ও প্রোটিনের ভরপুর দই খাবার হজম করতে সাহায্য করে।

Check Also

তেঁতুল ছাড়াই খুব সহজ পেতল কাঁসার বাসন করুন একদম নতুনের মতো ঝকঝকে!

তেঁতুল ছাড়াই খুব সহজ পেতল কাঁসার বাসন করুন একদম নতুনের মতো ঝকঝকে!

আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই কিন্তু বেশিরভাগ ঠাকুরের বাসন পেতল কাঁসার তৈরি হয়ে থাকে। দীর্ঘ সময় ধরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.