Saturday , October 31 2020
Home / সংস্কার / স্বামী বিবেকানন্দের এই কথাগুলোতে আপনার জীবন সম্পূর্ণ বদলে যাবে.. মন দিয়ে পড়ুন একটি বার
image: google

স্বামী বিবেকানন্দের এই কথাগুলোতে আপনার জীবন সম্পূর্ণ বদলে যাবে.. মন দিয়ে পড়ুন একটি বার

স্বামী বিবেকানন্দের এই কথাগুলোতে আপনার জীবন সম্পূর্ণ বদলে যাবে.. মন দিয়ে পড়ুন একটি বার – স্বামী বিবেকানন্দ ১২ ই জানুয়ারি, ১৮৬৩ খ্রিস্টাব্দ জন্মগ্রহন করেন। তার আসল নাম নরেন্দ্রনাথ দত্ত। তিনি ছিলেন একজন হিন্দু সন্ন্যাসী, দার্শনিক, লেখক, সংগীতজ্ঞ এবং

ঊনবিংশ শতাব্দীর ভারতীয় অতীন্দ্রি়য়বাদী রামকৃষ্ণ পরমহংসের প্রধান শিষ্য।তার মত হওয়া কখনো কারোর পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি সাধারণ মানুষের জন্য কিছু উপদেশ দিয়ে গিয়েছিলেন যা মেনে চললে জীবনে সঠিক পথে চলতে পারবে সকলে।
জেনে নিন সেগুলি –

১। “দুনিয়া আপনার সম্বন্ধে কি ভাবলো সেই নিয়ে আপনি ভাববেন না। তাদেরকে তাদের মত ভাবতে দিন। আপনি আপনার লক্ষ্যে দৃঢ় থাকুন, একদিন দুনিয়া আপনার পায়ের সম্মুখে আসবে।”

২। “প্রথমেই কোন বড় পরিকল্পনা করবেন না। ধীরে ধীরে আগে শুরু করুন, তারপর সেটির প্রসারতা বাড়ান।”৩। “আগে নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন তবেই আপনার ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস আসবে।”৪। “মনের শক্তি হল সূর্যালোকের মত, যখন তা এক জায়গায় থাবে তখন এটি চকচক করে উঠবে।”

৫। “আপনি নিজেকে যেমন ভাববেন আপনি ধীরে ধীরে সেরকমই হয়ে যাবেন। যদি নিজেকে দূর্বল মনে করেন তাহলে আপনি ধীরে ধীরে দূর্বল হয়ে পরবেন, আর আপনি নিজেকে শক্তিশালী মনে করলে নিজেকে অনেক শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে পারবেন।”
৬। “আপনি সর্বদা ভাবুন যে আপনার মধ্যে সব রকম শক্তি আছে। সব মানুষের মধ্যেই দেবতা বাস করেন। নিজের মধ্যে দৈবত্বকে চিনতে শিখুন।”

৭। “অন্য কারোর উপর ভরসা করোনা। অন্য কারোর কাজের অপেক্ষায় থেকনা। নিজে যেটুকু পারো সেই টুকুই করো।”৮। “কখনো কারোর নিন্দা করবেন না। যদি কারোর জন্য সাহায্যের হাত বারিয়ে দিতে চান তাহলে নিশ্চই তা করুন। যদি না পারেন হাত জোর করে প্রার্থনা করুন, আর আপনার সামনের জনকে সাহায্য করার সুযোগ দিন।”

৯। “মানুষের সবচেয়ে বড় ধর্ম হল নিজের স্বভাবের প্রতি সত্য থাকা, নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন।”
১০। “ভক্তি, যোগ এবং কর্ম – মুক্তির এই তিনটি পথ। প্রত্যেকটি মানুষের উচিৎ নিজের নিজের কর্মের পথ অনুসরণ করা। তবে এই যুগে কর্মযোগের উপর সকলের বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া দরকার।”

১১। “সর্বদা নিজেকে কর্মে নির্লিপ্ত রাখুন। কারন কাজের মধ্যে থাকলে আপনার সব কাজ সহজ বলে মনে হবে, অলস হয়ে থাকলে সব কিছুই কঠিন মনে হবে।”১২। “নিজেকে দূর্বল মনে করা সব থেকে বড় পাপ।”
১৩। “জীবনে ঝুঁকি নিতে শিখুন। আপনি ঝুঁকি নিলে তবেই আপনি জিতবেন, আর যদি হারেন তাহলে অন্যকে সঠিক পথ দেখাতে পারবেন।”

Check Also

মা লক্ষ্মীর পুজোয় ভুলেও এই কাজগুলো করবেন না, তাহলে সংসার ডুবে যাবে

মা লক্ষ্মীর পুজোয় ভুলেও এই কাজগুলো করবেন না, তাহলে সংসার ডুবে যাবে – লক্ষ্মী পুজো ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!