Home / সংবাদ / সঙ্গি’নীর সাথে দেখা করতে প্রতি বছর ৮ হাজার মাইল পথ পাড়ি!
image: goolge

সঙ্গি’নীর সাথে দেখা করতে প্রতি বছর ৮ হাজার মাইল পথ পাড়ি!

সঙ্গিনীর সাথে দেখা করতে প্রতি বছর ৮ হাজার মাইল পথ পাড়ি! – দূ’র’ত্ব স’ম্পর্কের ক্ষে’ত্রে কোনো বা’ধা নয়, প্রমাণ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার একটি পুরুষ সারস। ক্লেপে’টান নামের পাখিটির স’ঙ্গিনীর নাম ম্যালেনা। সে থাকে ক্রোয়েশিয়ায়। প্রতিবছর নি’য়ম করে প্রেয়সীর

স’ঙ্গে সময় কা’টাতে আট হাজার মাইলের বেশি পথ উড়ে যায় ক্লেপে’টান। ১৬ বছর ধ’রে এ কাজ করে যাচ্ছে পাখিটি! মা’র্কিন অনলাইন ম্যাগাজিন মেন্টাল ফ্লসের প্র’তিবেদন থেকে এসব ত’থ্য জা’না গেছে। জা’না গেছে, শি’কারির গু’লিতে আ’হত হয়ে একটি পুকুরে প’ড়ে যায় ম্যালেনা। সেখান থেকে সারসটিকে উ’দ্ধার করেন স্টিফেন ভোকিচ নামের এক ক্রোয়েশীয় নাগরিক। আ’হত সারটিকে শুশ্রূষা করে সু’স্থ

করে তোলেন। ভোকিচ বলেন, ‘যদি ওকে পুকুর থেকে না তুলে আনতাম, তাহলে শিয়ালে খে’ত। যেহেতু ওর ভা’গ্য আমিই ব’দলে দিয়েছি, তাই ওর জীবনের দায়িত্বও আমা’র।’ তাই সারসটিকে নিজে’র কাছে রেখে লালন-পা’লন ক’রতে থাকেন ভোকিচ। সে সময় তিনি টের পান, বছরের একটি নি’র্দিষ্ট সময়ে পাখিটির স’ঙ্গে দেখা ক’রতে আসে তার প্রেমিক। সারস ঠোঁট দিয়ে ঠুক ঠুক শব্দ করে বলে ভোকিচ ম্যালেনার

প্রেমিকের নাম দেন ‘ক্লেপে’টান’। এমনিতে সারস সাধারণত এত দীর্ঘ সময় ধ’রে এক স’ঙ্গীর স’ঙ্গে স’ম্পর্কে থাকে না। তাই ক্লেপে’টান-ম্যালেনা জু’টিকে এদিক থেকে অন’ন্য বলা যায়। এই সারস জু’টির বার্ষিক মি’লনক্ষ’ণের জন্য প্রতিবছর বিশেষ আয়োজন রাখেন ভোকিচ। ক্লেপে’টানের আসার সময় হয়ে এলে তাকে স্বাগত জা’নাতে মাছভর্তি বালতি প্র’স্তুত করে রাখেন ভোকিচ। ম্যালেনার স’ঙ্গে সময় কা’টানোর

পর বছরের বাকি সময়টা ক্লেপে’টান কোথায় থাকে, তা জা’নতে পাখিটির শ’রীরের বেঁ’ধে দেওয়া হয়েছে একটি ট্র্যাকিং রিং। যা থেকে জা’না গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনের কাছাকাছি কোথাও ক্লেপে’টানের বাসা। প্রতিবছর স’ঙ্গিনীর দেখা পেতে প্রায় এক মাস আট হাজার মাইলের বেশি পথ পাড়ি দেয় ক্লেপে’টান। তবে এই লাভবার্ডদের প্রেমকা’হিনী আর কত দিন দী’র্ঘায়িত হবে, তা নিয়ে সং’শয় দেখা দিয়েছে।

জা’না গেছে, চলতি বছরের মা’র্চে ম্যালেনার স’ঙ্গে যে সারস পাখিটি দেখা করেছে, সেটি নাকি ক্লেপে’টান নয়, অন্য কেউ। ক্লেপে’টান-ম্যালেনা জুটির জন্য একটি ফেসবুক গ্রুপ খু’লেছে ভোকিচের ছেলে ডারিও। ক্লোজড ওই গ্রুপে ডারিও লিখেছে, ‘আ’সল ক্লেপে’টান বো’ধ হয় আসেনি। এবার যে সারসটি এসেছে, সে কেমন যেন অদ্ভু’ত আ’চরণ করছে। পাখিটি কেবল খাবার খেতে এসেছিল। দুদিন থেকে

চলে গেছে।’ অথচ ক্লেপে’টান যখন ম্যালেনার স’ঙ্গে দেখা ক’রতে আসত, তখন তারা কখনোই একে অন্যকে কাছ ছা’ড়া করত না। এখন পর্যন্ত এ বছর ক্লেপে’টানের ক্রোয়েশিয়া আসার কোনো খবর পাওয়া যায়নি। হয়তো বা’র্ধক্যজ’নিত কারণে মা’রা গেছে সে। সংবাদমাধ্যম ক্রোয়েশিয়া টাইমসকে ভোকিচ বলেন, ‘এটাই প্রকৃতির নিয়ম। ক্লেপে’টান তার কাজ করে গেছে। গত বছর যখন এসেছিল, খুবই ক্লান্ত দেখাচ্ছিল তাকে।’

Check Also

ভয়া’নক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা! যে ৫টি এলাকা ডেঞ্জারজোনে রয়েছে

ভয়া’নক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা! যে ৫টি এলাকা ডেঞ্জারজোনে রয়েছে – ভয়ানক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!