Saturday , December 5 2020
Home / স্বাস্থ্য / যেসব রোগের মহৌষধ আকন্দ পাতা
Image: google

যেসব রোগের মহৌষধ আকন্দ পাতা

আকন্দ পাতা আমাদের একটি পরিচিত গাছ। এটি মাঝারি আকারের ঝোপ জাতীয় উদ্ভিদ। ৭ হতে ৮ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। গাছের ছাল ধূসর বর্ণের এবং কাণ্ড শক্ত ও ডাল কচি লোমযুক্ত। আকন্দ গাছর পাতা প্রায় ৪ হতে ৮ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়। এবং

পাতার নিচের দিক তুলোর ন্যায়। গাছের পাতা, শাখা ভাঙলে দুধের মতো সাদা আঠা বের হয়। এই গাছের ফুল সাদা বা বেগুণী বর্ণের হয়ে থাকে। চলুন তবে জেনে নেওযা যাক আকন্দ পাতার অসাধরণ কিছু উপকারিতা যা সেসব রোগের মহৌষধ হিসেবে কাজ করে –

১। আকন্দ গাছের কষ তুলোয় ভিজিয়ে লাগালে দাঁত ব্যথা দূর করে এবং যো’ণিতে ধারণ করলে গর্ভপাত ঘটায়। আকন্দ পাতার সোজা দিকে সরিষার তেল মাখিয়ে পাতাটি অল্প গরম করে পেটের উপরে রাখলে পেট কামড়ানো বা পেটের জ্বালা বন্ধ হয়।

২। খোস-পাঁচড়া বা একজিমার ক্ষেত্রে আকন্দের আঠার সাথে ৪গুণ সরিষার তেল মিশিয়ে গরম করে এই গরম তেলের সাথে কাঁচা হলুদের রস মিশিয়ে খোস পাঁচড়ায় লাগালে ভালো হয়ে যায়। হাত-পা মচকে গেলে প্রচণ্ড ব্যথায়ে এই পাতা দিয়ে গরম ছেক দিলে ব্যথা উপশম হয়।

৩। আকন্দ পাতা বাত-ব্যথা নিবারক ও ফোলা অপসারক। আকন্দ পাতা ও হলুদের তৈরি বড়ি শোথ, ফোলা পাণ্ডু রোগ নাশক এবং কৃমি রস নাশক। অম্বল বা গ্যাস দেখা দিলে আকন্দ পাতার সাথে পোড়া ছাই পানিসহ পান করলে সাথে সাথে তা উপকার হয়।

৪। আকন্দ গাছের মূলের ছাল শুকিয়ে চূর্ণ করে আকন্দ পাতা আঠা দিয়ে মুড়েয়ে বিড়ির মত বানিয়ে টানলে তা হাপানি রোগের জন্য অসাধারণ কাজ করে। এই পাতা ওষুধ হিসাবে ব্রণ ফোটাতে সহায়তা করে। আকন্দ পাতা দিয়ে ব্রণ চেপে বেঁধে রাখলে ব্রণ ফেটে যায়।

৫। আকন্দ চুলের রোগ, বাত-ব্যথা এবং বিষনাশে বিশেষ কার্যকরী। বুকে সর্দি জমে গেলে এই পাতা গরম করে বুকে সেক দিলে তা ভালো হয়। হাত-পা ভাংগা মচকায় আকন্দ পাতা ব্যথা নিরাময়ে তড়িৎ গতিতে কাজ করে।

Check Also

জিহ্বা দেখেই বোঝা যায় ঠিক কোন রোগে আ’ক্রা’ন্ত আপনি!

জিহ্বা দেখেই বোঝা যায় ঠিক কোন রোগে আ’ক্রা’ন্ত! – জিহ্বার রঙ দেখে- সাধারনত ডাক্তার জিহ্বা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x