Wednesday , May 12 2021
Home / রুপচর্চা / মসুর ডালে ফর্সা হবার ফেসপ্যাক

মসুর ডালে ফর্সা হবার ফেসপ্যাক

নিয়ম করে মসুর ডালের প্যাক লাগালে আপনার এই কালো দাগ বা ছাপ দূর হবে শীগ্রই। দেখে নিন মসুর ডালের প্যাক তৈরীর পদ্ধতি- বিভিন্ন

কারণে আমাদের মুখে কালো কালো কিছু দাগ বা ছাপ তৈরী হয়। নিয়ম করে মসুর ডালের প্যাক লাগালে আপনার এই কালো দাগ বা ছাপ দূর
হবে শীগ্রই। দেখে নিন মসুর ডালের প্যাক তৈরীর পদ্ধতি : (১) রাতে মসুর ডাল দুধের মধ্যে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে ভিজানো ডাল পিষে

মুখে লাগান। প্রতিদিন এই কাজটি করতে থাকুন, মুখের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। (২) মসুর ডাল পিষে তাতে মধু এবং দই মিশিয়ে মুখে লাগান। এতে আপনার ত্বক সতেজ হবে। (৩) মুখে বা শরীরের অন্য কোথাও কালো দাগ হলে আপনি মসুর ডালের সাথে চালের গুঁড়া, চন্দন

পাউডার,মুলতানী মাটি, কমলা লেবুর শুকনো খোঁসা, শসার রস মিশিয়ে কালো দাগে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। (৪) মসুর ডাল গুঁড়া করে তাতে ডিমের হলুদ অংশটা মেশান। রোদে এই পেস্টটা শুকিয়ে একটা শুকনো বোতলে ভরে রাখুন। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে 2 ফোটা লেবুর রসের সঙ্গে 1 চামচ দুধ মিশিয়ে এই পেস্টটা মুখে লাগান। আধা ঘন্টা রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

তেজপাতা দিয়ে দাঁত ঝকঝকে সাদা করার কৌশল!
দাঁত সাদা করতে তেজপাতা দারুন উপকারী, তবে এই তেজপাতাকে মেশাতে হবে কোন টক ফলের সাথে। যেমন ধরুন কমলা বা লেবুর খোসা। যা যা লাগবেঃ – তেজপাতা ৪টি (কাঁচা বা শুকনো সব রকমেই হবে) – কমলা ও লেবুর খোসা (তেজপাতার সমপরিমাণ) – মুখে

দুর্গন্ধের সমস্যা বা মাড়িতে ব্যথা থাকলে লবঙ্গ ২/৩টি। প্রণালীঃ – তেজপাতা বেটে নিন বা মিহি গুঁড়ো করে নিন। – কমলা বা লেবুর খোসা শুকিয়ে লবঙ্গের সাথে মিশিয়ে গুঁড়ো করে নিন। – সব উপকরণ সামান্য লবণ সহযোগে একত্রে মিশিয়ে নিন। – ফলের খোসা শুকিয়ে নেয়া

জরুরী। কাঁচা অবস্থায় দাঁতের ক্ষতি করবে। ব্যবহার বিধিঃ এই গুঁড়োটি সামান্য পানির সাথে মিশিয়ে সপ্তাহে ৩দিন দাঁত মাজুন। রোজ মাজার প্রয়োজন নেই, এতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে। দাঁতের হলদে ভাবের ওপর নির্ভর করে সপ্তাহে দুই থেকে তিন বার ব্যবহার করাই যথেষ্ট।

About Moni Sen

Check Also

বিনা খরচায় ত্বকের জেল্লা বাড়াবেন যেভাবে

বিনা খরচায় ত্বকের জেল্লা বাড়াবেন যেভাবে

বিভিন্ন কারণে মন খারাপ হয়। তার প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকে। লকডাউনের কারণে তেমনই শরীর মনে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x