Saturday , December 5 2020
Home / সংবাদ / ভয়া’নক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা! যে ৫টি এলাকা ডেঞ্জারজোনে রয়েছে
Image: google

ভয়া’নক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা! যে ৫টি এলাকা ডেঞ্জারজোনে রয়েছে

ভয়া’নক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা! যে ৫টি এলাকা ডেঞ্জারজোনে রয়েছে – ভয়ানক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠবে কলকাতা, আইআইটি খড়্গপুরের গবেষকরা এমনই সতর্কবাণী শোনালো সম্প্রতি। রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের তীব্রতা হবে ৬.১ থেকে ৬.৮ অবধি। ক্ষতি হবে ৫০

হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি। ইন্দোনেশিয়া ও নেপালে সুনামি এবং ভূমিকম্পে প্রচুর ক্ষতি দেখেছে বিশ্ববাসী। তবে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন এ ক্ষতি কিছুই নয়। আরো বড় কিছু হওয়ার আশঙ্কা করছেন তারা।সবথেকে ডেঞ্জারজোনে রয়েছে রাজারহাট, নিউটাউন, পার্কস্ট্রিট, সল্টলেক, দমদমের মতো ঘন জনবসতিপূর্ন এলাকা। প্রচুর মানুষের প্রাণহানি হবে বকে মনে মরা হচ্ছে। তবে গবেষকরা চেষ্টা করছেন কীভাবে এই

বিপর্যয়ের মোকাবিলা করা হয় সেই রাস্তা খুঁজতে। ১১০০ কেজি কুকুরের মাংস উদ্ধার, হোটেলে খাসি বলে খাওয়ানো হচ্ছে কুকুরের মাংস… চারদিক থেকে ঘেরা ছোট একটি জায়গা। দেখতে ঘরের মতোই। বেশ কয়েকদিন ধরে সেখানে আসা-যাওয়া করেন কয়েকজন অচেনা ব্যক্তি। সন্ধ্যা নামলেই বাড়ে তাদের আনাগোনা। এর পাশেই রয়েছে কয়েকটি ঘর। গাড়ি নিয়ে সেখানে ঢুকে পড়ে একদল লোক। ভেতরে যাওয়ার পর

তালা লাগিয়ে দেয়া হয় প্রবেশ দরজায়। এতে সন্দেহ আরো বেড়ে যায়।গেটে তালা থাকায় স্থানীয়রা ওই আবদ্ধ জায়গায় ঢুকতে পারেননি। কিন্তু গত ২-৩ দিন ধরে ওই ঘেরা জায়গার ভেতর থেকে উৎকট দুর্গন্ধ আসছিল। কিন্তু কেন এত দুর্গন্ধ, তা সরেজমিনে দেখতেই সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয়রা প্রাচীর টপকে ভেতরে ঢোকেন। ভারতীয় একটি গণমাধ্যম বলছে, সেখানে গিয়ে তারা যা দেখতে পান তাতে অনেকের চক্ষু চড়কগাছ

হওয়ার দশা। লোকচক্ষুর আড়ালে কাটা হচ্ছে কয়েক সপ্তাহ আগের মরাগলা বিড়াল-কুকুর। এই খবর জানাজানি হতেই এলাকায় বিক্ষোভ শুরু হয়। একটি গাড়ি আটক করে ভাঙচুর চালায় স্থানীয় জনতা। কিন্তু অন্ধকারের কারণে চার-পাঁচজন সেখান থেকে পালিয়ে যায়। তবে গ্রামবাসীদের হাতে ধরা পড়ে এক পাচারকারী। আটক ব্যক্তি বলেছেন, কলকাতার মধ্যমগ্রামের বিভিন্ন হোটেলে, যশোর রোডের দু’ধারের

একাধিক রেস্তোরাঁয় কুকুর বিড়ালের মাংস সরবরাহ করেন তারা। ওই ব্যক্তি আরো বলেন, কুকুর-বিড়ালের মাংসকে খাসির মাংস বলে বিভিন্ন হোটেল, রেস্তোরাঁতে দেয়া হতো। এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের বাড়ি কলকাতার দেগঙ্গার বিভিন্ন এলাকায়।উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে দেশটির চেন্নাই

প্রদেশের এগমোর রেলওয়ে প্ল্যাটফর্ম থেকে ১১০০ কেজি কুকুরের মাংস উদ্ধার করা হয়। এসব মাংস প্রদেশের বিভিন্ন হোটেলে সরবরাহ করা হতো বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Check Also

আস্ত সাপকে গিলে খাচ্ছে সবুজ রঙের একটি ব্যাঙ! ঝড়ের গতিতে ভাই’রাল

আস্ত সাপকে গিলে খাচ্ছে সবুজ রঙের একটি ব্যাঙ! ঝড়ের গতিতে ভাই’রাল – সাপের এক অন্যতম ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x