Wednesday , January 20 2021
Home / সংবাদ / “”বিজেপি একটা মিথ্যুক-চিটিংবাজের দল”, ভরা সভা থেকে বিজেপিকে তোপ দাগালেন মমতা ব্যানার্জি!

“”বিজেপি একটা মিথ্যুক-চিটিংবাজের দল”, ভরা সভা থেকে বিজেপিকে তোপ দাগালেন মমতা ব্যানার্জি!

“”বিজেপি একটা মিথ্যুক-চিটিংবাজের দল”, ভরা সভা থেকে বিজেপিকে তোপ দাগালেন মমতা ব্যানার্জি! – নির্বাচনী প্রাক্কালে বিজেপির বিরুদ্ধে আবারও তোপ মুখ্যমন্ত্রীর।সারা বাংলা জুড়ে বিশেষজ্ঞ মহলে শুভেন্দু অধিকারী দলত্যাগ প্রসঙ্গে আলোচনা চলছে। অনেকেই মনে করছেন,এই

ছন্দপতনের ফলে অনেকাংশ দুর্বল হয়ে পড়েছে শাসক দল। কিন্তু কোন কিছু তোয়াক্কা না করে বাংলার উদ্দেশ্যে কাজ করে চলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এদিন তারই প্রভাবে বিজেপি কে উদ্দেশ্য করে আ’ঘাত হা’নলেন তিনি। এদিন সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী কে প্রশ্ন

করা হয়,বিজেপি যে গোটা দেশে মেরুকরণের রাজনীতি করছে , তখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই রাজ্যে এসে বলেছেন রবীন্দ্রনাথের একাত্মবাদের কথা জানিয়েছেন। এটা তিনি দেখছেন কীভাবে?তখন নির্দ্বিধায় মুখ্যমন্ত্রী উত্তর দেন,”একাত্মবাদ, বহুত্ববাদ, জাতীয়তাবাদ এইসব

নিয়ে যা যা বলেছেন শাহ তা জানতে গবেষণা করতে হবে।রবীন্দ্রনাথ নাকি জোড়াসাঁকোয় জন্মাননি। এই সব বলেছেন তিনি। সাংবাদিক গুলোর তো এই সব প্রচার করা উচিৎ।”পাশাপাশি তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে জাতীয় সংগীত বদলানোর প্রসঙ্গে বলেন,,”রবীন্দ্রনাথ হলেন রবীন্দ্রনাথ। বাংলায় তথা ভারতবর্ষ এবং সারা পৃথিবী রবীন্দ্রনাথকে সম্মান করে। কারণ তাদের আন্তর্জাতিক চেতনা বিশ্বে বাংলার স্বপ্ন

দেখায়। ওদের পড়াশোনা করতে হবে। ওদের পড়াশোনা করতে বলুন। রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে অবমাননা মানব না। জাতীয় সংগীত নিয়ে যদি কেউ প্রশ্ন করেন, রক্ত দেওয়ার জন্য তোলেন, রক্ত দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন, তবু বদলাতে দেব না গান।”এই সভায় রাজ্যের মানুষ দের উদ্দেশ্য করে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য,,”রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড রয়েছে। রয়েছে কৃষকদের জন্য আলাদা সুবিধাও। তা সকলের জন্য অনেক বেশি কার্যকর।

কেন্দ্রের প্রকল্পগুলি সকলের জন্য সমান নয়।” উল্লেখ্য কিছুদিন আগেই আগামী বছরের জুন মাসের পরও ফ্রী রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।তৃণমূল সরকারের তরফে জানানো হয়েছে,ইতিমধ্যে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে দুয়ারে সরকার প্রকল্প। যা বেশ

জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। অপরদিকে অনলাইন ক্লাস এর সমস্যার সমাধান করার জন্য সাড়ে নয় লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে ট্যাব কেনার জন্য ১০০০০ টাকা দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছে সরকার। বোঝাই যাচ্ছে শাসক দলের নেতৃত্ব থেকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে দলীয় কর্মী এবং সাধারন মানুষ কে।

About By Moni Sen

Check Also

জমি চাষ করতে গিয়ে ৬০ লক্ষ টাকা মূল্যের হীরে কুড়িয়ে পেলেন এই কৃষক!

জমি চাষ করতে গিয়ে ৬০ লক্ষ টাকা মূল্যের হীরে কুড়িয়ে পেলেন এই কৃষক- ৬০ লক্ষ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x