Home / সংস্কার / প্রাকৃতিক উপায়ে যৌ’বন ধরে রাখার ৫টি কৌশল

প্রাকৃতিক উপায়ে যৌ’বন ধরে রাখার ৫টি কৌশল

প্রাকৃতিক উপায়ে যৌ’বন ধরে রাখার ৫টি কৌশল – মানুষের শারীরিক সৌন্দর্য ধীরে ধীরে ম্লান হতে থাকে। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই ছাপ পড়ে চেহারায়। কিন্তু আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজের ম্লান হতে থাকা মুখখানা দেখতে কারই বা ভালো লাগে! তাইতো

বয়স লুকাতে নিয়মিত পার্লারে দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়। তাতে করে গাদা গাদা টাকা আর সময়, দুটোই ব্যয় হয়। তাই বয়স ধরে রাখতে ঘরেই যত্ন নিন নিজের। তৈরি করে নিন অ্যান্টি এজিং ভেষজ ফেসিয়াল মাস্ক-

ডিম ও মধু: ১টি ডিমের কুসুম, ১ চামচ দই, ১ চামচ মধু আর ও চামচ আমন্ড অয়েল নিন। একটি বড় পাত্রে সব উপাদান একসঙ্গে নিয়ে ভালো করে নাড়তে থাকুন, যতক্ষণ না এটি গাঢ় আর আঠালো হচ্ছে। এবার এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে অন্তত ১০ মিনিট রেখে সাবান দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে নিন। মধু আপনার ত্বক স্নিগ্ধ করবে, আমন্ড আর ডিমের কুসুম ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করবে, দই ত্বককে পরিশোধিত আর সতেজ করবে।

অ্যাভোকোডা ও মধু: ২ চামচ মধু, ২ চামচ অ্যাভোকোডা, ১টি ডিমের কুসুম নিন। সব উপাদান একসঙ্গে নিয়ে ভালো করে চটকে মেখে নিন। আপনার পরিষ্কার করে ধোয়া মুখের ত্বকে এই পেস্টটি মেখে অন্তত ২৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই ফেসিয়াল মাস্ক আপনার সাধারণ ত্বকে অ্যান্টি এজিং এর কাজ করবে। একই সঙ্গে আপনার ত্বককে করবে উজ্জ্বল।

মধু ও গাজর: অর্ধেক গাজর ও আধা চামচ মধু নিন। গাজর ভালো করে সিদ্ধ করে, চটকে পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার এর সঙ্গে মধু মিশিয়ে মিনিট দশেক ফ্রিজে রেখে দিন। পরিষ্কার মুখে পেস্ট ত্বকে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিয়ে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। গাজরে থাকা ভিটামিন এ, সি আর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। মধুর মধ্যে থাকা ভেষজ উপাদান, এনজাইম আর সুগার ত্বকের লাবণ্য বৃদ্ধিতে সহায়ক।

মধু ও ল্যাভেন্ডার অয়েল: ১ চামচ মধু, ৩ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার এসেন্সিয়াল অয়েল নিন। হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিয়ে এই দুটি উপাদান ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে ত্বকের উপর মাস্কের মতো লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট রেখে আবার হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। অ্যান্টি-এজিং ফেসিয়াল মাস্ক হিসেবে এই মাস্কটি সব ধরনের ত্বকের ক্ষেত্রেই খুব উপকারি।

মধু ও কলা: আধা চামচ মধু, ১টি পাকা কলা (চটকানো), দুধ দিয়ে সিদ্ধ করা ১ কাপ ওটমিল, ১টি ডিম নিন। সব উপাদান একসঙ্গে নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে আপনার ত্বকে সমান অনুপাতে লাগান। ১০-১৫ মিনিট মাস্কটি রেখে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ওটমিলে থাকা ভিটামিন ও মিনারেলস, এটি ত্বককে নিখুঁত ভাবে পরিষ্কার করে। কলায় থাকা ভিটামিন ও ডিমের লিকিথিন ত্বকের উপর প্রাকৃতিক প্রলেপের কাজ করে যা ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। মধু ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে।

About By Moni Sen

Check Also

নাভির আকার দেখে বুঝুন আপনার চরিত্র বা ভবিষ্যৎ আপনার সম্পর্কে.

না’ভির আকার দেখে বুঝুন আপনার চ’রিত্র বা ভবিষ্যৎ আপনার সম্পর্কে..

না’ভির আকার দেখে বুঝুন আপনার চ’রিত্র বা ভবিষ্যৎ আপনার সম্পর্কে..- সবাই নিজের ব্যাপারে অনেক কিছু ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x