Thursday , October 29 2020
Home / লাইফ-স্টাইল / পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করলে যে ভুল গুলো কখনোই করবেন না
Image: google

পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করলে যে ভুল গুলো কখনোই করবেন না

পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করলে- বর্তমানে বাসা-বাড়ি, হোটেল এমন কি গ্রামঞ্চলেও গ্যাসে রান্নার ব্যাপক প্রচলন শুরু হয়েছে। তাই যদি আপনি বাসা বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকেন তবে আপনাকে কিছু সর্তকতা মেনে চলতে হবে নতুবা ভয়ানক বিপদে পড়তে পারেন যে কোন সময়। যদি আপনার এই নিয়মগুলো মেনে চলেন তাহলে অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনা অতি সহজে এড়াতে পারবেন। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক সে নিয়মগুলো:

১। গ্যাস সিলিন্ডারে সাধারণত রবারের পাইপ ব্যবহার করা হয় গ্যাস চলাচলের জন্য। সেই পাইপে ISI ছাপ থাকাটা কিন্তু বাধ্যতামূলক। এর সাথে আরও একটি বিষয় লক্ষ্যনীয় যে, গ্যাসের পাইপটি যেন লম্বা ১ হতে ২ ফুটের বেশি না হয়। কেননা পাইপ যত লম্বা হতে এত পাইপ পরীক্ষা করা তত সমস্যা হয়।

২। গ্যাস সিলিন্ডারের নজেলটি যাতে পাইপ দিয়ে ভালো করে কভার করা থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কেননা গরম বার্নারের সাথে যাতে পাইপের সাথে কোনভাবেই যেন লেগে না যায়। যদি লেগে যায় তাহলে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যাবে।

৩। গ্যাসের পাইপটি নিয়মিতভাবে ভেজা কাপড় দিয়ে পরিস্কার করুন, তবে খেয়াল রাখবেন তা সাবান বা ডিটারজেন্ট দিয়ে মুছতে যাবেন না। সেই সাথে প্রতি ২ বছর পর পর গ্যাসের পাইপ বদলে নতুন পাইপ ফিটিং করবেন। পাইপ পুরাতন হয়ে গেলে তা ফৃুটো হওয়া সম্ভবনা বেড়ে যায়।

৪। গ্যাসের পাইপ পরিস্কার করার জন্য গ্যাসের পাইপটিকে কোন রকমের কাপড় বা প্লাস্টিক জাতীয় জিনিস দিয়ে মোড়াবেন না। সে ক্ষেত্রে পাইপটি ফেটে গেলে কিংবা লিক সহজে বোঝা যাবে না। গ্যাস লিং হচ্ছে বুঝতে পারলে বাড়ির সকল ইলেকট্রিক অ্যাপ্লায়েন্স বন্ধ করুন যেমন: ওভেন। এরপর গ্যাসের রেগুলেটার বন্ধ করে কিচেনের দরজা জানালাসহ বাসা বাড়ির সকল দরজা জানালা খুলে দিন।

৫। গ্যাস লিক হওয়ার পর যদি অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে তা বন্ধ না হয় তবে আপনার নিকটস্থ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউটর বা ফায়ার সার্ভিসের হেল্প লাইনে ফোন করে জানান। সেই সাথে সিলিন্ডার হতে গ্যাসের রেগুলেটর আলাদা করে দিয়ে সিলিণ্ডারের মুখে সেফটি ক্যাপ দিয়ে রেখে দিন।

৬। সিলিন্ডার হতে গ্যাস রেগুলেটর খোলার সময় খেয়াল রাখুন যাতে আশেপাশে কোন আগুন বা প্রদীপ যেন জ্বালানো না থাকে। একটি ঘরে দুটি সিলিন্ডার রাখার জন্য কমপক্ষে ১০ বর্গফুট স্থান রাখবেন। তবে গ্যাস সিলিন্ডার এমন স্থানে রাখবেন না যাতে তা গরম হয়ে যায়।

৭। গ্যাস সিলিন্ডার এর উপরে কখনো কোন কাপড়-চোড়র নেকরা বা অন্য কোন কিছু রাখবে না। গ্যাসের ওভেনটি সবসময় সিলিন্ডারের অন্তত্ব হাফ ফুট বা ৬ ইঞ্চি উপরে রাখতে হবে। যাতে ওভেনের উপরে সরাসরি হওয়া না লাগে, সে দিকে লক্ষ্য রাখুন।

৮। কখনো যদি দেখেন আপনার ব্যবহৃত সিলিন্ডার হতে গ্যাস লিংক হচ্ছে তখন ভুলেও আতঙ্কিত না হয়ে তা ঠান্ডা মাথায় সমধান করার চেষ্টা করুন উপরে বর্ণিত নিয়মানুসারে। বিপদের সময় মাথা ঠাণ্ডা না রাখলে বিপদে আরও বিপদ বেড়ে যেতে পারে তাই পুরো বিষয়টি ঠাণ্ডা মাথায় ট্যাকেল দিন।

Check Also

গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে আর চিন্তা নয়! রইল সহজ সমাধান

গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে আর চিন্তা নয়! রইল সহজ সমাধান – মাছে-ভাতে বাঙালির কাছে মাছ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!