Saturday , December 5 2020
Home / স্বাস্থ্য / ধূমপায়ী-অধূমপায়ী সকলের জন্য ফুসফুস পরিস্কার করার স’হজ টিপস
image: google

ধূমপায়ী-অধূমপায়ী সকলের জন্য ফুসফুস পরিস্কার করার স’হজ টিপস

ধূমপায়ী-অধূমপায়ী সকলের জন্য ফুসফুস পরিস্কার করার স’হজ টিপস – কিছু খারাপ এবং ক্ষতিকারক অভ্যাস যেমন ধূমপান ছেড়ে দেবার কথা চিন্তা করা কারোর পক্ষে অসম্ভব মনে হয়। আপনি যদি ৫ বছর ধরে ধূমপান করে থাকেন সেক্ষেত্রে এই নেশা আপনার কাছে

বিপদজনক। ধূমপান আপনার স্বাসযন্ত্র প্রণালীর মারাত্মক ক্ষতি সাধন করে। দুর্বল স্বাসযন্ত্র আপনার শরীরে যেকোন জটিল রোগকে ডেকে আনতে পারে। আপনার সুস্বাস্থ্যর জন্যই ধূমপান ছেড়ে দেওয় আপনার এখন অবশ্য কর্তব্য। কিন্তু সমস্যার সমাধান করতে আমাদের আরো

গভীরে যেতে হবে। আমাদের শরীরকে সুস্থ ও সতেজ রাখতে আমাদের স্বাসযন্ত্রকে পরিষ্কার রাখতে হবে। আসুন আমরা কিছু উপায় জেনে নেব কিভাবে আমরা আমাদের ফুসফুসকে পরিষ্কার রাখতে পারি, পরে আমাকে ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না কিন্তু প্রতিটি সিগারেট প্যাকেট আপনার

ফুসফুসকে মৃত্যুর দিকে একহাত করে ঠেলে দেয়। আপনার দরকার কিছু সাধারন গৃহস্থ উপাদানসমূহ যা আপনার ফুসফুসকে পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে । ১ টি আদার টুকরো, দুই চা চামচ হলুদ বাটা, ১ লিটার জল, ৪০০ গ্রাম রসুন এবং ৪০০ গ্রাম করাইতে লাল করে ভাজা চিনি

। একটি পাত্রে জল গরম করুন ।এরপর চিনি, রসুন বাটা, আদা বাটা ও হলুদ বাটা গরম জলে মিশিয়ে দিন ।এরপর গরম মিশ্রণটি কিছুসময় ঠান্ডা হতে দিন । এরপর এই মিশ্রণটি একটি এয়ারটাইট কনটেইনারের মধ্যে ঢুকিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন ।এই মিশ্রণটি প্রতিদিন সকালে খালি

পেটে ও সন্ধ্যায় ২ চামচ করে খান যা আপনার ফুসফুসকে কয়েক দিনের মধ্যেই পরিষ্কার করে তুলবে। এই চমকপ্রদ নিজস্ব হাতে বানানো মিশ্রণটি আপনার সকল। আপনার শরীরের জন্য আরো আয়োডিন প্রয়োজন কিনা এই ৮টি লক্ষনই বলে দিতে পারে…. আপনার শরীরে কি

আরো আয়োডিনের অভাব রয়েছে কিনা তা আমরা আয়োডিনের অভাবে প্রকাশিত সবচেয়ে লক্ষণীয় উপসর্গগুলোর একটি তালিকা করেছি। যদি আপনি নিজের সাথে এসবের মিল পান তাহলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে গিয়ে আসল কারণ খুঁজে বের করুন। ১.অতিরিক্ত শীত লাগা গরমের মধ্যেও চাদর মুড়ি দিয়ে থাকা আয়োডিনের অভাব নির্দেশ করে। সবাই যখন গরমের তীব্রতায় টিশার্ট পড়ে ঘুরে বেড়ায় তখনো আপনি শীতে

কাঁপেন তাহলে ধরেই নিতে হবে আপনার শরীরে আয়োডিনের অভাব রয়েছে যা আপনার বিপাক প্রক্রিয়া ধীর করে দেয় এবং দেহ তার প্রয়োজনীয় পরিমাণ তাপ উৎপাদন করতে পারে না। ফলে আপনি অতিরিক্ত শীত অনুভব করেন।

Check Also

জিহ্বা দেখেই বোঝা যায় ঠিক কোন রোগে আ’ক্রা’ন্ত আপনি!

জিহ্বা দেখেই বোঝা যায় ঠিক কোন রোগে আ’ক্রা’ন্ত! – জিহ্বার রঙ দেখে- সাধারনত ডাক্তার জিহ্বা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x