Thursday , August 5 2021
Home / বিনোদন / দেশের মাটি’র এসিপি সাহেব আসলে কে, রইলো তার আসল পরিচয়

দেশের মাটি’র এসিপি সাহেব আসলে কে, রইলো তার আসল পরিচয়

দেশের মাটি’র এসিপি সাহেব আসলে কে, রইলো তার আসল পরিচয়- স্টার জলসা (Star Jalsha) চ্যানেলের বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জনকারী ধারাবাহিক “দেশের মাটি” (Desher Maati)। ধারাবাহিকটি সেই প্রথম সম্প্রচারণের দিন থেকেই দর্শক ভীষণ পছন্দ করছেন। দিন প্রতিদিন

ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা বেড়েছে বৈ কমেনি। টলিউডের (Tollywood) বহু বলিষ্ঠ শিল্পী অভিনয় করছেন এই ধারাবাহিকে। শ্রুতি দাস (Shruti Das), দিব্যজ্যোতি দত্ত, রুকমা রায় (Rooqma Ray), রাহুল ব্যানার্জি (Rahul Banerjee) থেকে শুরু করে ভরত কল, শংকর চক্রবর্তী, রীতা দত্ত চক্রবর্তী, দেবোত্তম মজুমদারসহ টলিউডের বহু পরিচিত মুখ কাজ করছেন এই ধারাবাহিকে।এই ধারাবাহিকের কাস্টিংয়ে যেমন চমক রয়েছে, তেমনই চমক রয়েছে ধারাবাহিকের গল্পের প্রতি পরতে পরতে। “নোয়া-কিয়ান” জুটি থেকে আরম্ভ করে হালফিলে “রাজা-মাম্পি” জুটির

অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রিটা দর্শক আজকাল বেশ উপভোগ করছেন। বিশেষত সকলের অত্যন্ত পছন্দের জুটি হয়ে উঠেছে “রাজা-মাম্পি” জুটি। প্রকৃতপক্ষে এই জুটির কারণেই ধারাবাহিকের টিআরপি দিন প্রতিদিন বাড়ছে। তাই বলে ধারাবাহিকের অন্যান্য চরিত্র গুলি যে কম গুরুত্বপূর্ণ, এমনটা ভাবার কিন্তু কোনও অবকাশ নেই। ধারাবাহিকের পার্শ্বচরিত্রগুলিও কিন্তু ধারাবাহিকের প্রয়োজনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। হালফিলের প্রায়

প্রতিটি ধারাবাহিকে কমবেশি পুলিশের আগমন দেখা যায়। প্রশাসনের উপস্থিতি বাস্তব জীবনের পাশাপাশি রিল লাইফেও কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ! “দেশের মাটি” ধারাবাহিকেও এরকমই একটি পুলিশ চরিত্র আছে। তিনি সকলের প্রিয় “এসিপি সাহেব” (Desher Mati ACP Saheb)। “এসিপি সাহেব” প্রকৃতপক্ষে “নোয়া”কে খুব স্নেহ করেন। “নোয়া”কে “শিবু” গুন্ডা দল বলের হাত থেকে বাঁচিয়েছিলেন তিনিই। তারপর থেকেই “নোয়া”র পরিবারের সঙ্গে তার বিশেষ আত্মীয়তা গড়ে ওঠে। তবে “এসিপি সাহেব”এর সঙ্গে আবার “কিয়ান” এর মায়েরও একটি বিশেষ

সম্পর্কের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। একসময় তারা নাকি একে অপরের প্রতি অনুরক্ত ছিলেন। বর্তমানে অবশ্য তারা দুজনেই দুজনের প্রাক্তন। Desher Mati ACP Saheb ধারাবাহিকে “এসিপি সাহেব” চরিত্রটি যিনি পর্দায় ফুটিয়ে তুলছেন, নাম তার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। বাস্তব জীবনে তার পরিচয় জানলে চমকে উঠবেন আপনি। প্রায় ৬ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট, ধারাবাহিকের সুদর্শন অভিনেতা প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় (Prasun Banerjee) আদতেই একজন পুলিশ অফিসার। দীর্ঘ বেশ কয়েক বছর ধরেই জলপাইগুড়ি এবং মালদহ ডিভিশনে ডিআইজি পদে থেকে প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড

সামলাচ্ছেন তিনি। বর্তমানে তিনি কলকাতা পুলিশে ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট ট্রেনিং প্রোগ্রামের দায়িত্বে রয়েছেন। ডিআইজি প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় (DIG Prasun Banerjee) খরা, বন্যা, ঘূর্ণিঝড় ইত্যাদি সমস্ত প্রাকৃতিক বিপর্যয়েই সাধারণ মানুষের পাশে থাকেন। বিশেষত বন্যার সময় তিনি বন্যাদুর্গতদের উদ্ধার করার জন্য বিভিন্ন দুঃসাহসিক অভিযানে অংশগ্রহণ করেছেন। বন্যার সময় কৃষকদের ফসল রক্ষা থেকে আরম্ভ করে ত্রাণ শিবির গুলিতে বন্যাদুর্গতদের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়ার মতো অনেক কাজের সঙ্গে জড়িত থাকেন তিনি। Desher Mati ACP D.I.G Prasun

Bandopadhyay তিনি প্রকৃত অর্থেই একজন সৎ এবং সাহসী পুলিশ অফিসার। বালুরঘাটে সক্রিয় হয়ে উঠেছিল একটি লরি ছিনতাই চক্র। এই চক্রের মূল পান্ডারা নিজেদের কাস্টমস অফিসার হিসেবে পরিচয় দিয়ে চালকদের থেকে লরি ছিনতাই করতো। এই খবর জানতে পেরে পুলিশ সুপার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে অপারেশন চালিয়ে এই লরি ছিনতাই চক্রের পাণ্ডাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন।এছাড়াও প্রশাসনিক পদে থেকে তিনি জালনোটসহ মার্কিন ডলার উদ্ধারের ঘটনার তদন্তের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে সমাজসেবা মূলক

অনুষ্ঠানেও অংশগ্রহণ করতে দেখা যায় তাকে। সৎ এবং সাহসী এই পুলিশ অফিসার আর কৃতিত্বের জন্য বাংলা থেকে বারংবার সম্মানিত হয়েছেন। বর্তমানে এই বাংলার এই কৃতী পুলিশ অফিসারকে ধারাবাহিকের পর্দাতেও দেখা যাচ্ছে। প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধারাবাহিকের পর্দায় আনার কাজটি যিনি করেছেন তিনি আর কেউ নন, স্বয়ং স্টার জলসার ধারাবাহিকগুলির চিত্রনাট্য লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। লীনা গঙ্গোপাধ্যায় নিজেও পশ্চিমবঙ্গের মহিলা কমিশনের দায়িত্বে রয়েছেন। অতএব সেই সূত্রেই প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলাপ হয় তার। এরপর তিনি

নিজেই তার পরিচালিত ধারাবাহিকে পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করার জন্য প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে নির্বাচন করেন এবং তাকে প্রস্তাব পাঠান। কলকাতা পুলিশ এবং বেঙ্গল পুলিশের দায়িত্ব রয়েছে প্রসূন বন্দোপাধ্যায়ের কাঁধে। ব্যস্ততম শিডিউলের মধ্যে থেকেই সময় বার করে নিয়ে লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের পরিচালিত ধারাবাহিকে অভিনয় করেন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। পুলিশ অফিসার হয়ে পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করতে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে কিন্তু খুব বেশি বেগ পেতে হয়নি। তার অভিনয়ও দর্শকের বেশ পছন্দের। “দেশের মাটি” ধারাবাহিকের “এসিপি সাহেবে” এর আসল পরিচয়টি আপনার জানা ছিল কি?

Check Also

“বাপ দেখেনি ছাগল, ছেলে মুরগি দেখেই পাগল”, সায়নীর মন্তব্যে নেটিজেনদের..

“বাপ দেখেনি ছাগল, ছেলে মুরগি দেখেই পাগল”, সায়নীর মন্তব্যে নেটিজেনদের..

সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনমহলের আক্রমণের শিকার সায়নী ঘোষ। সায়নীর করা পোস্টের কমেন্ট সেকশনের নীচে অশ্লীল মন্তব্য ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *