Friday , June 25 2021
Home / স্বাস্থ্য / গরম জল ও লবঙ্গের জাদুকরী উপকারিতা!

গরম জল ও লবঙ্গের জাদুকরী উপকারিতা!

গরম জল ও লবঙ্গের জাদুকরী উপকারিতা!- ঘুমাতে যাওয়ার আগে যদি ১টি লবঙ্গ ও ১ গ্লাস গরম পানি পান করেন তাহলে মিলবে অনেক সুবিধা। হজম প্রক্রিয়া উন্নত করতে সাহায্য করে লবঙ্গ।গ্যাস্ট্রিক, বমিভাব এবং বদহজমের মতো অনেক সমস্যায় লবঙ্গ অত্যন্ত কার্যকরী। আসুন জেনে নেই,

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে লবঙ্গ ও গরম পানি পানে যত উপকার মিলবে প্রতিদিন লবঙ্গ খেলে গলায় সংক্রমণ-এর হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়। বুকে জমে থাকা কফ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। হজম, পিত্তবিনাশকারী, হাঁপানি, জ্বর, বদহজম, কলেরা, মাথাব্যথা, হাঁচি এবং কাশির

দূর করতে এটি বিশেষ উপকারী। লবঙ্গে আছে নাইজেরিসিন এর উপকারী উপাদান। পরীক্ষায় দেখা গেছে, এই উপাদান রক্ত থেকে শর্করা বিভিন্ন কোষে পৌঁছে দেয়, ইনসুলিন নিঃসৃত হওয়ার পরিমাণ বাড়ায়। এজন্য ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে লবঙ্গ বেশ উপকারী। বিভিন্ন পরীক্ষায় দেখা

যায়, লবঙ্গ-এর উপাদান হাড়ের শক্তি ও বোন ডেনসিটি বাড়াতে সাহায্য করে। এজন্য রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একগ্লাস হালকা গরম পানির সাথে একটি লবঙ্গ খেয়ে নিন।

করোনা ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পানিতে মেশান এসব উপাদান
পানির অ’পর নাম জীবন। আর তাই তো যে কোনো রোগ কাবু করার প্রধান শর্ত হলো শরীরের প্রয়োজন মিটিয়ে পানি খাওয়া। এতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও ঠিক থাকে। শরীরে পানির অভাব ঘটলেই যে কোনো সংক্রমণ খুব দ্রুত শরীরে বাসা বাঁধতে পারে।

এই সময় দিনে কম করে আড়াই থেকে তিন লিটার পানি খাওয়া জরুরি। শারীরিক কসরত বেশি করলে সাড়ে তিন থেকে চার লিটারও খেতে ‘হতে পারে। তবে অনেকেই নিয়ম করে ঘণ্টা ধরে পানি খেতে পারেন না। তাই ঠাণ্ডা যে কোনো পানীয় দিয়ে গলা ভেজান। চিকিৎসকদের মতে, পানির বদলে প্যাকেটব’ন্দি ফলের রস বা ঠাণ্ডা পানীয় শরীরের কোনো উপকার করে না। এতে শরীরের পানি শোষণ করে ভিতর থেকে আরো আর্দ্র করে তোলে।রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমায়। তবে এই সময় সাধারণ পানির পরিবর্তে পান করতে পারেন

আয়ুর্বেদিক পানীয়। পুষ্টিকর এই ভেষজ পানীয় বানাতে সামান্য কয়েকটি উপাদানই যথেষ্ট। কী কী উপায়ে তৈরি করবেন এই পানীয়- > সিকি কাপ পুদিনা পাতা এক কাপ ফুটন্ত পানিতে দিয়ে ১৫ মিনিট ঢেকে রাখু’ন। ঠাণ্ডা হলে সাত কাপ পানি মিশিয়ে বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন এক ঘণ্টা। সারা দিন অল্প করে খান। এতে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যাও কমবে। কম থাকবে ফ্লুয়ের উপসর্গ। নিয়মিত খেলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা ঠিক থাকে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। > এক মুঠো টাটকা পুদিনা পাতা হালকা থেঁতো করে তাতে মেশান পাতলা করে কা’টা

লেবুর টুকরো। ৮ কাপ পানি মিশিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন। দুই থেকে তিন ঘণ্টা পর খেতে থাকুন। পুদিনার উপকারের স’ঙ্গে যুক্ত হবে লেবুর ভিটামিন সি। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে যার কোনো জুড়ি নেই। > এক চামচ আ’দা কুচি ও টুকরো করে কা’টা লেবু ফুটন্ত পানিতে ১৫ মিনিট ভিজিয়ে ঠাণ্ডা করে ফ্রিজে রেখে দিন। কম থাকবে ফ্লুয়ের উপসর্গ। বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

About Moni Sen

Check Also

আপনি যদি আম পছন্দ করেন তাহলে এটা জানা খুবই জরুরী, অসতর্ক থাকলে বড় সমস্যা হতে পারে

আপনি যদি আম পছন্দ করেন তাহলে এটা জানা খুবই জরুরী, অসতর্ক থাকেন তবে বড় সমস্যা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *