Monday , July 26 2021
Home / আধুনিক রান্নাবান্না / গরমে সুস্থ্য থাকতে পান করুন ঘোল বা মাঠার শরবত

গরমে সুস্থ্য থাকতে পান করুন ঘোল বা মাঠার শরবত

গরমে সুস্থ্য থাকতে পান করুন ঘোল বা মাঠার শরবত – গরমকালে দিনের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পায় ও সূর্য রশ্মির তাপে শরীর থেকে প্রচুর পানি বাহির

হয়ে যায়। এই পানির ঘাটতি পূরণের জন্য অনেক বেশি তরল পান করা প্রয়োজন। আর এই ঘাটতি পূরণের জন্য ঘোল হতে পারে আদর্শ। তাই ঘোল তৈরি করার কয়েকটি রেসিপি জেনে নেই আসুন।ঘোল বা ছানার পানি বিভিন্ন দেশে একটি উপাদেয় পানীয় হিসেবে পরিচিত। দুধ হতে

ছানা অপরাসরণের পর অবশিষ্ঠাংশই ঘোল নামে পরিচিত। এতে দুধের কেজিনপ্রোটিন (Casein) ছাড়া আর সকল উপাদানই বিদ্যমান। এটি মূলত পনির উৎপাদনের একটি প্রধান উপজাত।

চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

১। লেবু ও ঘোল ২ টেবিল চামচ দই ১ গ্লাস পানিতে দিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। স্বাদের জন্য সামান্য লবণ মিশিয়ে নিন। একটি লেবুর অর্ধেক অংশের রস চিপে দিন। ক্লান্তিকর দিনের শেষে বাসায় ফিরেই এই পানীয়টি পান করুন।
২। কাঁচামরিচ ও ঘোল দই, পানি, কাঁচামরিচ ও কারিপাতা একটি ব্লেন্ডারে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। কাঁচামরিচ ও কারিপাতা হামানদিস্তায় পিষে নিয়েও ঘোলের সাথে মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি একটি দক্ষিণ ভারতীয় উপাদেয় পানীয়। যারা মসলাদার পানীয় খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য অতুলনীয়।

৩। জিরা ও ঘোল সুস্বাদু ও কম মসলা যুক্ত স্বাদের জন্য আধা কাপ দই এর মধ্যে আধা টেবিল চামচ জিরা গুঁড়ো, এক চিমটি লবণ ও এক কাপ পানি ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। আপনি এতে কয়েকটি পুদিনা পাতা বা ধনে পাতাও দিতে পারেন। সব শেষে এক টুকরো বরফ দিয়ে পান করুন।
৪। খনিজ লবণ ও ঘোল খনিজ লবণ ও জিরা গুঁড়ো ঘোলের সাথে মিশান। পানীয়টি যাতে ঘন না হয়ে কিছুটা পাতলা হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। এর সাথে পুদিনা পাতা মিশিয়ে নিতে পারেন।

৫। পুদিনা ও ঘোল এক বাটি তাজা পুদিনা পাতা, এক কাপ দই এবং ৩০০ মিলিলিটার পানি মিশান। এর সাথে আদা গুঁড়ো ও আধা টেবিল চামচ জিরা গুঁড়ো মিশিয়ে মিশ্রণটি ব্লেন্ডারে দিন। তারপর পানীয়টি ছেঁকে নিন এবং ফ্রিজে ২০ মিনিট রেখে পান করুন। এই ঘোলের রেসিপিগুলোর যেকোনটি পান করে শীতল হোন এই উষ্ণ আবহাওয়ায়।

Check Also

ফ্রিজে রাখা শক্ত রুটি মুহূর্তেই নরম করুন সহজ উপায়ে!

ফ্রিজে রাখা শক্ত রুটি মুহূর্তেই নরম করুন সহজ উপায়ে!

ফ্রিজে রাখা শক্ত রুটি মুহূর্তেই নরম করুন সহজ উপায়ে!- অনেকেই সকালে ও রাতে রুটি খেতে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *