Monday , April 19 2021
Home / সংবাদ / কেউ সাহায্য করতে আসেনি, অসহায় স্বামীকে কাঁধে তুলে নিয়ে হাঁটলেন স্ত্রী

কেউ সাহায্য করতে আসেনি, অসহায় স্বামীকে কাঁধে তুলে নিয়ে হাঁটলেন স্ত্রী

কেউ সাহায্য করতে আসেনি, অসহায় স্বামীকে কাঁধে তুলে নিয়ে হাঁটলেন স্ত্রী – একজন প্রতিবন্ধী মানুষের জীবন কতটা চ্যালেঞ্জিং সেটা সকলেরই জানা। কিন্তু তার জীবনে যদি এমন কোনো মানুষ থাকে যে তার সব কাজে তার পাশে থাকে তাহলে তাহলে তার জীবনটা অনেক

সরল হয়ে যায়। তারই পরিচয় দিলেন মহারাষ্ট্রের জলগাঁওয়ের বাসিন্দা দীপক এর সহধর্মিণী জ্যোতি। উত্তর প্রদেশ থেকে নিজ রাজ্য ফেরার সময় কানপুর সেন্ট্রাল প্লাটফর্মে যেতে স্বামীকে কাঁধে নিলেন স্ত্রী। যা এক পতিব্রতা নারীর জলজ্যান্ত উদাহরণ। দীপক ও তার স্ত্রী কাজের জন্য

ভীন রাজ্যে গিয়েছিল। কিন্তু তারপর লকডাউন ঘোষণার পর তারা সেখানেই আটকে যায়। তারা যেখানে কর্মরত ছিলেন সেখানে এক দুর্ঘটনায় দীপক এর পা দুটো ভেঙে যায়। প্লাস্টার করা হলেও দীপক হাটতে সক্ষম হয়নি। লকডাউন এর প্রথমদিকে বহু শ্রমিক পায়ে হেঁটে বাড়ি ফেরার

জন্য রহনা দিয়েছিলেন। এর ফলে বহু দুর্ঘটনা ঘটেছে। সেই জন্য সরকার থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন এর ব্যাবস্থা করা হয়। তাই তারা ট্রেন এর অপেক্ষায় কানপুর স্টেশনে ছিলেন। পরদিন সকালে যখন ট্রেন আসে তখন জ্যোতির স্বামী দীপককে সাহায্য করার জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি

তখন তিনি নিজে ওই প্রখর রোদের মধ্যে স্বামীকে কাধে নিয়ে ট্রেনে ওঠেন। স্টেশনে উপস্থিত সমস্ত মানুষ স্বামীর প্রতি স্ত্রীর এই গভীর ভালোবাসা দেখে অবাক হয়ে যান।

বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার গোপন কিছু টিপস! নারী, পুরুষ উভয়ের জন্য বিবাহ একটি সামাজিক বন্ধন বা বৈধ চুক্তি যার মাধ্যমে এই দুটি মানুষের মধ্যে দাম্পত্য সম্পর্ক স্থাপিত হয়। বিবাহ মানে দুটি মনের মিলন। প্রত্যেক মানুষই চায় তাদের বিবাহিত জীবন সুখের ও শান্তির হোক। কিন্তু নানা কারনে বিচ্ছেদ চলে আসে তাই সুখী দাম্পত্য পেতে গেলে কতগুলি শর্ত মেনে চলতে হবে।যেমন

1) সংসারের নানা কারণে ঝামেলা আসে রাগ হয় কিন্তু বিছানায় যাওয়ার আগে রাগ নিয়ে যাবেন না এতে দাম্পত্য কখনো সুখের হবেনা। নিজের রাগ থিতু করে তবেই যান।
2) বিবাহিত জীবনে মতানৈক্য হতেই পারে, দুটো আলাদা মানুষের চিন্তা ভাবনা আলাদা হওয়া স্বাভাবিক তাই সব সময় ঝগড়া না করে একে অপরের কথা শুনুন, অপরদিকে মানুষটিকে বুঝতে শিখুন, নিজের বক্তব্য বুঝিয়ে বলুন।

3) ভুল মানুষ মাত্রই হয়ে থাকে তাই মাথা ঠান্ডা করে অপরপক্ষকে ভুলটা ধরিয়ে দেন বা নিজে ভুল করলে ক্ষমা চেয়ে নিন। ক্ষমা করার পর ওই বিষয়ে আর কখনো কোনো কথা বলবেন না।
4) দুজনে একসাথে ঝামেলা করবেন না কখনো কখনো একপক্ষ একটু চুপ করে যান।

5) বিয়ের আগে কারো কারণ বারন শোনেননি বলে বিয়ের পরও তাই করবেন তা চলবে না। দুজনেই এডজাস্টমেন্ট করতে শিখুন, দুজন দুজনের কথা মেনে চলুন।
6) অফিসের কাজ সেখানে যাবতীয় চিন্তাভাবনা অফিসের মধ্যে ফেলে আসবেন।

7) টিপিক্যাল স্বামী-স্ত্রীতে পরিণত না হয়ে দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বটিকে বর্তমান রাখুন।
8) বিয়ে করেছেন মানে ঘরের সাহায্যের জন্য লোক এনেছেন তা কিন্তু নয়, তাই নিজেও সংসারের দায়িত্ব নিন। একজন রান্না করলে অন্যজন অন্যভাবে সাহায্য করুন।
9) মাঝে মধ্যে প্রেম বানিয়ে রাখার জন্য সারপ্রাইজ দিন।

About Moni Sen

Check Also

এক কন্যা সন্তানের পিতৃত্বের দাবি নিয়ে হাসপাতালে হাজির তিন বাবা!

এক কন্যা সন্তানের পিতৃত্বের দাবি নিয়ে হাসপাতালে হাজির তিন বাবা!

এক কন্যা সন্তানের পিতৃত্বের দাবি নিয়ে হাসপাতালে হাজির তিন বাবা! – জন্মের পর সদ্যোজাত শিশুকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x