Monday , April 19 2021
Home / লাইফ-স্টাইল / এবার গরিব-বড়লোক সবার জন্যই চালু হলো ডিজিটাল রেশন কার্ড

এবার গরিব-বড়লোক সবার জন্যই চালু হলো ডিজিটাল রেশন কার্ড

এবার গরিব-বড়লোক সবার জন্যই চালু হলো ডিজিটাল রেশন কার্ড – করোনা আবহে রেশন সংক্রান্ত নানান নিয়মের পরিবর্তন হয়েছে। এবার পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য দপ্তর এর তরফ থেকে রেশন কার্ড সংক্রান্ত নয়া নির্দেশিকা জারি করা হল।পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য দপ্তরের তরফ থেকে জানানো

হয়েছে, কিছুদিন পর থেকেই ভর্তুকি হীন ডিজিটাল রেশন কার্ডের আবেদন করতে পারবেন সাধারণ মানুষেরা। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে যে, এই ভর্তুকির ডিজিটাল রেশন কার্ড থাকলে রেশনে গৃহস্থী জিনিসপত্র পাওয়া যাবে এবং তার ওপর কিছুটা

ছাড় দেওয়া হবে মানুষকে। নিম্ন মধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্ত,উচ্চবিত্ত শ্রেণীর মানুষেরা এই কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন। সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আগামী মাস থেকেই এই কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবে সাধারণ মানুষেরা। কীভাবে এবং কোথা থেকে ভর্তুকি

ডিজিটাল রেশন কার্ড পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে সেই সম্পর্কে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ইতিমধ্যে নির্দেশিকা দিয়ে দিয়েছে। ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ডের আবেদন করার জন্য ফর্ম ফিলাপ করে জমা দিতে হবে। এই ফর্ম পাওয়া যাবে খাদ্য দপ্তরে অফিসে এবং সমস্ত রেশন

দোকানে। এছাড়াও ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য অনলাইনে আবেদন করা যাবে। যে সমস্ত মানুষ যারা অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করবেন তাদেরকে http://www.wbpds.gov.in এই ওয়েবসাইটে গিয়ে 10 নম্বর ফর্ম ডাউনলোড করে তা ফিলাপ করতে হবে। আপনাদের জানিয়ে দিই এই প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য দপ্তরের রেশন কার্ডের জন্য অনলাইনে আবেদন করার সুযোগ পাচ্ছেন রাজ্যবাসী। সংশ্লিষ্ট

ওয়েবসাইট থেকে ফর্ম ডাউনলোড করে হাতে পূরণ করার সুযোগ থাকবে এছাড়াও কম্পিউটারের মাধ্যমে অর্থাৎ পুরোপুরি অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করে জমা দেওয়ার সুযোগ থাকছে রাজ্যবাসীর কাছে। তবে অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করলে পরিচয় পত্র হিসেবে আধার কার্ডের ছবি

আপলোড করতে হবে। আবেদন করার মাত্র 30 দিনের মধ্যেই বাড়িতে পৌঁছে যাবে ওই ডিজিটাল রেশন কার্ড। তবে এই নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড হাতে পাওয়ার পর আগের পুরনো রেশন কার্ডের কোনো মূল্য থাকবে না। এই নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড নিয়ে গ্রাহকেরা ছাড়ে রেশন

দোকান থেকে জিনিস কিনতে পারবেন। এ রাজ্যের বিত্তশালী মানুষদের দাবি, রেশন কার্ডকে তারা শুধুমাত্র নিজের পরিচয় পত্র হিসেবে ব্যবহার করেন। এমন দাবি ওঠার পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক করেন বিত্তশালী নাগরিকদের জন্য নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড করা হবে।

আর তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে খাদ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে 10 নম্বর ফর্ম চালু করা হয়। এই রেশন কার্ডে ব্যক্তির নাম, ঠিকানা এবং জন্ম তারিখ উল্লেখ করা থাকবে। এছাড়া সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, যে সমস্ত বিত্তশালী মানুষদের দু টাকা কেজি চালের রেশন কার্ড রয়েছে তারা যেন এই নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করেন এবং পুরনো রেশন কার্ডটি জমা দেন।

About Moni Sen

Check Also

সন্তানকে যে ৮টি কথা কখনোই বলা উচিৎ নয়!

সন্তানকে যে ৮টি কথা কখনোই বলা উচিৎ নয়!

সন্তানকে যে ৮টি কথা কখনোই বলা উচিৎ নয়! – আমা’র নিজেদের সন্তানের ভালোর জন্য বকা-ঝকা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x