Monday , July 26 2021
Home / রুপচর্চা / একঢাল লম্বা ঘন কালো চুল পেতে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন মেথি-ভাতের টনিক! দেখুন পদ্ধতি

একঢাল লম্বা ঘন কালো চুল পেতে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন মেথি-ভাতের টনিক! দেখুন পদ্ধতি

জল, আবহাওয়া, খাদ্যাভ্যাসের কারণে অনেকের চুল ঝরা, লম্বা না-হওয়া বা রুক্ষ থাকার সমস্যা দেখা দেয়। অনেকের ক্ষেত্রে চুলের নানান সমস্যা স্থায়ী রূপে থেকে যায়। লম্বা ও ঘন চুলের স্বপ্ন অনেকেই দেখেন। সেই স্বপ্নকে সত্যি করার জন্য নানান প্রোডাক্টও ব্যবহার করে থাকেন

অনেকে। তবে বাজারজাত এই দ্রব্য ব্যবহার না-করে ঘরোয়া উপায় তৈরি সামগ্রী ব্যবহার করলে অধিক সুফল পেতে পারেন। আবার এর কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও হয় না। মেথি এবং ভাতের মাড় এমন একটি উপাদান যা চুল মজবুত করে এবং লম্বা হতে সাহায্য করে। প্রত্যেকের

রান্নাঘরেই মেথি থাকে। আবার রোজ ভাত রান্না হয়। সেই মাড় ফেলে না-দিয়ে চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধির কাজে লাগাতে পারেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, মেথির জল ও ভাতের মাড় দিয়ে চুল ধুলে গোড়া মজবুত হয়।

মেথির উপকারিতা-
মেথিতে প্রচুর পরিমাণে ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন এ, কে এবং সি থাকে। এ ছাড়াও পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম ও আয়রনের মতো অপরিহার্য খনিজও থাকে। শুধু তাই নয় এতে পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন থাকে। এই সমস্ত উপাদান একত্রিত হয়ে চুল সারিয়ে তুলতে, বড় করতে এবং চুলের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। চুল ঝরা আটকাতেও সাহায্য করে মেথি।

ভাতের মাড়ের উপকারিতা-
ভাতের মাড়ে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট থাকে। যা চুলে পুষ্টি জোগায়। ভাতের মাড় ব্যবহার করলে চুলে ফ্রিকশান কমে, ফলে চুল হয় নরম ও নমনীয়। ভাতের মাড়ে উপস্থিত ভিটামিব এ, সি, ডি ও ই চুলের হারিয়ে যাওয়া ঔজ্জ্বল্য ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। চুল নরম ও সিল্কি করে ভাতের মাড়। তাই ভাতের মাড় ও মেথির জল দিয়ে তৈরি টনিক ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যায়।

জেনে নিন কী ভাবে বানাবেন-
এই টনিক আধ কাপ চাল, ৩ চামচ মেথি দানা ও জলের সাহায্যে এই টনিক তৈরি করা যাবে। ২৫০ মিলিলিটার জলে সারারাত মেথি দানা ভিজিয়ে রাখুন। সকালে আধ কাপ চালে এক কাপ জল মিশিয়ে ২-৩ ঘণ্টা ছেড়ে দিন। এবার পৃথক পৃথক আঁচে মেথি ও চাল ফুটিয়ে নিন। কম তাপমাত্রায় ৫ থেকে ৭ মিনিট পর্যন্ত ফুটতে দিন। এর পর একটি পাত্রে মেথি ও ভাতের মাড় ছেকে নিন। ঠান্ডা হওয়ার জন্য ছেড়ে দিতে হবে। এক দিন পর এই জল ব্যবহার করবেন।

কী ভাবে এই টনিক ব্যবহার করবেন-
প্রথমে ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে নিজের চুল ধুয়ে নিন। তার পর স্ক্যাল্প ও চুলে সেই টনিক লাগিয়ে রাখুন। ৫ থেকে ১০ মিনিট পর্যন্ত স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করুন। এর পর শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল ঢেকে নিতে হবে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর ঈষদুষ্ণ জলে চুল ধুয়ে নিন।

Check Also

একটি মাত্র পাতা ব্যবহারে কালো ঠোঁট হয়ে যাবে গোলাপি, শিখে নিন ঘরোয়া উপায়

একটি মাত্র পাতা ব্যবহারে কালো ঠোঁট হয়ে যাবে গোলাপি, শিখে নিন ঘরোয়া উপায়

একটি মাত্র পাতা ব্যবহারে কালো ঠোঁট হয়ে যাবে গোলাপি, শিখে নিন ঘরোয়া উপায়- আজকে আপনাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *