Wednesday , October 27 2021
Home / আধুনিক রান্নাবান্না / এই পদ্ধতিতে আলুর ভর্তা তৈরি করলে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, বাড়ির সবার পছন্দ হবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ..

এই পদ্ধতিতে আলুর ভর্তা তৈরি করলে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, বাড়ির সবার পছন্দ হবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ..

এই পদ্ধতিতে আলুর ভর্তা তৈরি করলে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, বাড়ির সবার পছন্দ হবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ..- আলু আমাদের দেশের সবচেয়ে পরিচিত একটি সবজি। ভোজ্য এই সবজিটি দেশের প্রতিটি রান্নাঘরে খুবই জনপ্রিয়। আলু দিয়ে নানা ধরনের রেসিপি তৈরি করা হয়ে

থাকে। আলু দিয়ে তৈরি রেসিপি মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে আলু ভর্তা। ভর্তা পছন্দ করে না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া খুবই মুশকিল। রুচি বৃদ্ধি তে আলু ভর্তা অতুলনীয়। আমাদের মধ্যে অনেকেই সকালবেলা ভাতের সাথে আলু সেদ্ধ কিংবা আলু ভর্তা খেতে খুবই ভালোবাসেন। কিন্তু

অনেকেই আলুভর্তা’র সুস্বাদু রেসিপি সম্পর্কে অজ্ঞ। কিভাবে সঠিক উপায়ে সুস্বাদু আলু ভর্তা করা যায় তা অনেকেই জানেন না। ফলে কষ্ট করে বানানো আলু ভর্তা ততটা স্বাদ হয়না। এখন আমি আপনাদের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানাবো কিভাবে সঠিকভাবে আলুভর্তা করলে

সবচেয়ে বেশি স্বাদ পাওয়া যাবে যাতে শুধু আলু ভর্তা দিয়ে পুরো এক প্লেট ভাত সাবাড় করে দেওয়া যাবে। আলু ভর্তা বানানোর উপকরণ হিসাবে আমাদের নিতে হবেঃ খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ আলু,পেয়াজ কুচি,অল্প আদা কুচি,কাঁচা লঙ্কা কুচি,ধনেপাতা কুচি,সর্ষে তেল,লবণ

পরিমানমত,শুকনো মরিচ ভাজি। প্রথমেই তিন থেকে চারটি আলু পাত্রের মধ্যে নিয়ে গ্যাসের উপর বসিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে। ভালোমতো সিদ্ধ হয়ে গেলে আলোগুলো পাত্র থেকে নিয়ে ঠান্ডা করতে হবে। এরপর সেদ্ধ আলুর খোসা ছাড়িয়ে আলাদা একটি পাত্রে রাখতে হবে। এবার

ফ্রাইং প্যান এ তেল ঢেলে কিছুটা গরম করে তাতে শুকনো লঙ্কা এবং কাঁচা লঙ্কা ভেজে নেই। ভাজা হয়ে গেলে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখি। এবার আবার ফ্রাইংপ্যানে তেলের মধ্যে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ দেই এবং হালকা ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখি।এবার খোসা ছাড়ানো আলু গুলোকে ভালোমতো হাতের সাহায্যে কিংবা হ্যান্ড বিটার এর সাহায্যে পিষতে হবে যেন আলুর শক্ত না থাকে। এবার

মিহি করে মাখানো আলুর সাথে আগে থেকে করে রাখা পেঁয়াজের বেরেস্তা, কাঁচা মরিচ এবং শুকনা মরিচ ভাজা, ধনেপাতা কুচি, সামান্য পরিমাণ আদা মিশিয়ে ভালো করে মাখতে হবে। মাখানো আলুর সাথে পরিমাণ মতো লবণ যোগ করে নিতে হবে। সবশেষে আলু তে সামান্য

পরিমাণ সরিষার তেল দিতে হবে। এতে আলু ভর্তার ঝাঁজ বেড়ে যাবে এবং খেতেও অনেক সুস্বাদু হবে। আপনারা চাইলে স্বাদে ভিন্নতা আনতে আলু ভর্তার সাথে শুটকি মেশাতে পারেন। কিংবা সিদ্ধ ডিম কুচি কুচি করে দিতে পারেন। এছাড়াও মিহি করে মাখানো আলুর সাথে কালোজিরা কিংবা হলুদ মিশিয়ে স্বাদে ভিন্নতা আনতে পারেন।
ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন.. https://www.youtube.com/watch?v=2gQhH-ikh14

Check Also

দুর্দান্ত স্বাদের ডিম-মুসুর ডালের এই তরকারি হার মানাবে মাছ-মাংসের স্বাদকেও, রইল সহজ রেসিপি

দুর্দান্ত স্বাদের ডিম-মুসুর ডালের এই তরকারি হার মানাবে মাছ-মাংসের স্বাদকেও, রইল সহজ রেসিপি

ডিম-মুসুর ডাল দিয়ে বানিয়ে ফেলুন এই তরকারি, হার মানাবে মাছ-মাংসের স্বাদকেও, রইল রেসিপি- আমাদের প্রতিদিনের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *