Thursday , December 2 2021
Home / আধুনিক রান্নাবান্না / এই নিয়মে শুটকি ভুনা করলে স্বাদ হবে দ্বিগুন, শুটকি ভর্তা ভুনা দিয়ে নিমিষেই এক প্লেট ভাত শেষ হয়ে যাবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ

এই নিয়মে শুটকি ভুনা করলে স্বাদ হবে দ্বিগুন, শুটকি ভর্তা ভুনা দিয়ে নিমিষেই এক প্লেট ভাত শেষ হয়ে যাবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ

এই নিয়মে শুটকি ভুনা করলে স্বাদ হবে দ্বিগুন, শুটকি ভর্তা ভুনা দিয়ে নিমিষেই এক প্লেট ভাত শেষ হয়ে যাবে, রইল স্টেপ বাই স্টেপ- বাঙ্গালীদের মধ্যে খুব কম মানুষই পাওয়া যাবে যারা ভর্তা খেতে পছন্দ করে না। বাঙালি নামের সাথেই ভর্তা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। খাবারের

সাথে ভর্তা না হলে যেন মনে হয় কিছু একটা বাদ পড়ে গেছে। ভর্তা খেতে প্রায় সকলেই ভালোবাসে। বিশেষ করে যারা ঝাল খেতে পছন্দ করে তাদের ভর্তা ছাড়া একটা দিনও চলে না। বিশেষ করে মহিলারা ভর্তা এবং ঝাল খেতে বেশি পছন্দ করে। বর্তমানে প্রায় সকল ধরনের ভর্তা

রেস্টুরেন্টে সচরাচর পাওয়া যায়। কিন্তু রেস্টুরেন্টের খাবার গুলো স্বাস্থ্যসম্মত নয়। কেননা এগুলোতে স্বাদ ও ঘ্রাণ বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন প্রকার রাসায়নিক পদার্থ মিক্স করা হয়। তাই আমরা এই বাইরের খাবার গুলো বর্জন করে খুব সহজেই নিজ হাতে ঘরেই বানিয়ে উপভোগ করতে

পারি।আজকের এই ভিডিওতে দেখানো হয়েছে কিভাবে লইট্টা মাছ দিয়ে ভর্তা ভুনা তৈরি করা যায়। আমরা এর আগেও হয়তো অনেকে লইট্টা মাছের ভর্তা ভুনা খেয়েছি।কিন্তু আজকের এই লজ্জা মাছের ভর্তা বানানোর রেসিপি টা একটু ভিন্ন রকমের। নিম্নে তা উপকরণ সহ বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

উপকরণ সমূহ: ,লইট্টা মাছের শুটকি ,রসুন ,পেঁয়াজ ,আদা ,ধনিয়া গুড়া ,হলুদ ,মরিচ ,জিরার গুড়া ,সরিষার তেল
রন্ধন প্রণালী: প্রথমে শুটকি মাছ গুলো ভালো করে ধুয়ে একটু সিদ্ধ করে নিতে হবে। তারপর এর মধ্য হতে কাঁটাগুলো আলাদা করে নিতে

হবে। তারপর কড়াই এর মধ্যে শরিষার তেল দিয়ে কিছু পেয়জ কুচি ও রসুন হালকা ভেজে নিতে হবে।এবং এর মধ্যে শুটকি গুলো দিয়ে একটু নারাচারা করে পর্যায়ক্রমে রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা,, ধনিয়ার গুড়া হলুদ , মরিচের গুঁড়া এবং জিরার গুড়া দিয়ে ভালো করে

মিশিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মরিচের গুঁড়া টা একটু বেশি করে দিতে হবে কেননা ভর্তায় একটু ঝাল বেশিই দিতে হয়। তারপর 5 থেকে 6 মিনিট ঢেকে রাখতে হবে এবং মাঝে মাঝে নাড়াচাড়া দিতে হবে। এভাবেই খুব সহজে আপনার উপভোগ করতে পারেন লইট্টা মাছের শুটকি ভুনা।

রেসিপির উপকরণ গুলো সচরাচর প্রত্যেকেই ঘরের সব সময় পাওয়া যায়। তাই প্রত্যেকে যখন তখন এই রেসিপিটি তৈরি করে খেতে পারেন। এই রেসিপিটি তৈরি করে ভালো ফলাফল পেতে না টেনে পুরো ভিডিওটি দেখার অনুরোধ রইলো।
ভিডিও লিংক: https://www.youtube.com/watch?v=LWtKnEgRG18

Check Also

রান্নার কিছু ঘরোয়া টিপস, যা আপনি জানতেন না

রান্নার কিছু ঘরোয়া টিপস, যা আপনি জানতেন না..

1) যতটুকু সম্ভব পাতিলে ঢাকানা দিয়ে রান্না করা ভাল, এতে করে খাবারের পুষ্টিমান বজায় থাকে। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *